সরকারি কলেজ তদারকি করবে ঐ জেলার পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়

সরকারি কলেজ তদারকি করবে ঐ জেলার পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়

সরকারি কলেজ তদারকি করবে ঐ জেলার পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়। সরকারি কলেজ গুলোকে অধিভুক্ত করে অ্যাকাডেমিক মনিটরিংয়ের দায়িত্বে নিবে ঐ জেলার পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়।

তবে নতুন বিশ্ববিদ্যালয় গুলো শুরুতে আন্ডারগ্র্যাজুয়েট (অনার্স) কোর্স চালু না করে সরকারি কলেজের অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম মনিটরিংয়ের দায়িত্ব নেবে।

এ বিষয়ে রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সংগঠন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের সঙ্গে বৈঠকে এ প্রস্তাব তুলে ধরেন শিক্ষামন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা ও পরামর্শ বাস্তবায়নে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের অনুরোধ করে শিক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, এ জন্য আইন সংশোধনের প্রয়োজন হলে সরকার তাই করবে।

সব সরকারি কলেজ তদারকি করবে

অনুষ্ঠানে উপস্থিত দেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা সরকারের এই নির্দেশনা বাস্তবায়নে আগ্রহী বলেও জানান তারা।

শিক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, নতুন বিশ্ববিদ্যালয় যেগুলো হচ্ছে, সেগুলো কেনো শুরুতেই আন্ডার গ্র্যাজুয়েট কোর্সগুলো করছে? সেই জেলায় ইতোমধ্যে যেসব সরকারি কলেজ আছে তাদের আন্ডার গ্র্যাজুয়েট কোর্সগুলো মনিটরিং করুক।

আন্ডার গ্র্যাজুয়েট কোর্সগুলো মনিটরিং করবে এবং পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স বিশ্ববিদ্যালয় আলাদা করে করবে।

তবে শুরুটা নতুন বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্যে একটা চ্যালেজিং বিষয়। শিক্ষামন্ত্রী বলেন একটি ফুল সেটআপ নিয়ে সেখান থেকে আমরা রিসার্স ডেভেলাপম্যান্ট করুক।

সব সরকারি কলেজ তদারকি করবে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়

রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটের মিলনায়তনে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সংগঠন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের সাথে মতবিনিময়ের সময় এ কথা জানান।

আরো দেখুনঃ সার্টিফিকেট হারিয়ে গেলে তোলার নিয়ম জানুন

২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছিলেন সমস্ত কলেজ বা শতবর্ষী কলেজগলোকে রেসপেক্টিভ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিনস্ত করে একাডেমিক মনিটরিং নিশ্চিত করতে।

এই বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে তিনি সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিদের পরামর্শ ও দেন।

ওপেন ইউনিভার্সিটি সারাদেশের নন ফরমাল এডুকেশনের অ্যকাডিমক মনিটরিংয়ের কাজটা করছে, তাহলে কেনো চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম কলেজর অ্যাকাডেমিক মনিটরিংয়ের কাজ করতে পারবে না।

এক সময় তো করতো। পূর্বে যদি করার ক্যাপাসিটি থেকে থাকে তাহলে এখন তো সিস্টেম আরও বাড়ার কথা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেই উদ্যোগ নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সাত কলেজকে অন্তর্ভুক্ত করেছেন।

সেখানেও হয়ত চ্যালেঞ্জ আছে। সেই চ্যালেঞ্জটা তো আমরা অতিক্রম করছি।

শিক্ষার্থীরা রাস্তা বন্ধ করেছে। কিন্তু আমরা নড়িনি। ৭ কলেজের মান ইম্প্রুভ হয়েছে।

নতুন আইন সংশোধন করা হবে

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় যদি অ্যাকাডেমিক স্ট্যান্ডার্ড মনিটরিংয়ে কাজ করতে পারে অন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলো কেনো করতে পারবে না বলে মন্তব্য করেন।

এসব ক্ষেত্রে আইন সংশোধন করতে হলে মন্ত্রণালয় তা করবে বলে তিনি বলেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী নিজেই উদ্যোগ নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সাত কলেজকে অন্তর্ভুক্ত করেছেন। সেখানেও হয়ত চ্যালেঞ্জ আছে। সেই চ্যালেঞ্জটা তো আমরা অতিক্রম করছি। শিক্ষার্থীরা রাস্তা বন্ধ করেছে। কিন্তু আমরা নড়িনি।

শিক্ষার মান উন্নয়ন

শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী ২৬ ফেব্রুয়ারী বলেন, এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্ত আছে। শিক্ষার মান উন্নয়নে শিক্ষাবিদদের সঙ্গে আলোচনা করে এই প্রক্রিয়া ঠিক করা হবে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মশিউর রহমান বলেন, এ বিষয়ে সরকার একটি পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে।

তাঁদের আপত্তি থাকার প্রশ্নই আসে না। বরং কাজটি সমন্বিত করার জন্য যা যা করা দরকার, তাঁরা তা-ই করবেন।

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো সরকারের নির্দেশনা বাস্তবায়নে কবে নাগাদ পদক্ষেপ নেবে জানতে চাইলে বৈঠকে উপস্থিত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য গোলাম সাব্বির সাত্তার জানান, শিক্ষামন্ত্রী সরকারি কলেজগুলোকে মনিটরিংয়ের জন্য পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে প্রস্তাব করেছেন। এ নিয়ম আগে ছিল।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় আইন হওয়ার পর থেকে সরাসরি তারাই করছে। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়কে এ দায়িত্ব পালন করতে হলে বিধি সংশোধন করতে হবে।

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *